প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছেধর্ষণের আসামি

প্রকাশিত: ১১:২০ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৭, ২০২০

নাজমুল হোসেন গাজীপুর প্রতিনিধি।

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ধর্ষণ মামলার আসামি প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ালেও পুলিশ ধরতে পারছে না বলে অভিযোগ করেছেন বাদি । বাদির দাবি আসামিরা মামলা তুলে নিতে তাদের ওপর চাপ দিচ্ছেন । না হলে বোনসহ আবার তাকে ধর্ষণের হুমকি দিচ্ছেন । ওই মামলার আসামিরা হলেন সারদাগঞ্জ এলাকার কামাল হোসেন ও তরিকুল ইসলাম ওরফে সবুজ এর মধ্যে কামাল গ্রেপ্তার হলেও তরিকুলকে ধরতে পারেনি পুলিশ এ বিষয়ে মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা কাশিমপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রফিকুল ইসলাম বলেন আমরা তরিকুলকে কোথাও দেখছি না কেউ যদি দেখে আমাদের জানালে তাৎক্ষণিকভাবে গ্রেফতার করা হবে । বছর দুয়েক আগে ধর্ষণের শিকার মহিলার স্বামী মালয়েশিয়া যান এর আগে থেকেই প্রভাবশালী হিসেবে পরিচিত কামাল ও তরিকুল তাকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন তিনি এতে সাড়া দেননি। গত ১৪ ই অক্টোবর তরিকুলের আস্তানায় তাকে তুলে নিয়ে ওই দুজন ধর্ষণ করেন। এসময় তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে সিগারেটের আগুন দিয়ে ছেকা দেওয়া হয় ছুরি দিয়ে বিভিন্ন স্থানে যখম করা হয় কোনমতে ফোন করে বিষয়টি তার মাকে জানান । মা কাশিমপুর থানায় খবর দিলে পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে ।তাকে বেসরকারি চিকিৎসা কেন্দ্রে ভর্তি করে পুলিশ । সেখান থেকে সরকারি হাসপাতালে না নিয়ে তাকে বাসায় নিয়ে যায় পুলিশ ।পুলিশের একজন কর্মকর্তা তাকে আশ্বস্ত করেন শিগগিরই ধর্ষণের আসামিদের ধরা হবে ।এরপর তিনি বাসাতেই চিকিৎসা নেন কিন্তু পুলিশ মামলা না নেওয়ায় দূরসম্পর্কের আত্মীয় এর মাধ্যমে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করেন তিনি । সেখান থেকে বলে দেওয়ার পর একুশে অক্টোবর পুলিশ মামলা নেয়। ওই দিনই কামালকে গ্রেফতার করা হয় কিন্তু পুলিশ মামলা নিলেও তা শ্লীলতাহানির অভিযোগ নেই বলে জানান ওই নারী তিনি বলেন তখন তিনি বিষয়টি বুঝতে পারেননি ।এমনকি মামলায় তরিকুলকে আসামি করা হয় ফলে বাইরে থেকে তরিকুল তাকে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য চাপ দিতে থাকেন গ্রেপ্তারের ২৬ দিন পর জামিনে ছাড়া পান এরপর দুজন মিলে বাদি ও তার পরিবারের সদস্যদের জীবন অতিষ্ঠ করে তোলেন মামলা তুলে না নিলে আবার বোনসহ তাকে ধর্ষণের হুমকি দেওয়া হচ্ছে।