চকরিয়ায় বসতভীটা দখলে নিতে একই পরিবারের ৪ নারীকে কুপিয়ে জখম

প্রকাশিত: ৮:২২ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১

এসএম হান্নান শাহ চকরিয়া :

 কক্সবাজারের চকরিয়ায় বসতভীটা দখলে নিতে একই পরিবারের ৪নারীকে কুপিয়ে জখমের ঘটনা ঘটেছে। ৯৯৯ নাম্বারে ফোন পেয়ে পুলিশ জিম্মিদশা থেকে আহতদের উদ্ধার করে কক্সবাজার চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। ২৩ ফেব্রুয়ারী সকাল সাড়ে ১১টার সময় কক্সবাজার চকরিয়া পৌরসভা ৭নং ওয়ার্ডের নিজপানখালী গ্রামে ঘটেছে এ ঘটনা। অভিযোগে জানাগেছে, কক্সবাজার চকরিয়া পৌরসভা ৭নং ওয়ার্ডের নিজপানাখালী মৌলভীরকুম বাজার এলাকায় অসহায় পরিবারের নুরুল কবির গংয়ের বসতভীটার জমি জবর দখলের চেষ্টা চালায় একই এলাকার চিহ্নিত ভূমিদস্যু হত্যা,মাদকসহ অসংখ্য মামলার আসামী কামাল উদ্দিন ধলু গংয়ের। বিগত সময়ে জমির সীমানা নিয়ে বিরোধ সৃষ্টি হলে বর্তমান জাতীয় সংসদ সদস্য তৎকালীন উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আলম সরে জমিনে গিয়ে বিরোধ নিষ্পত্তি করেন। সর্বশেষ ২২ ফেব্রুয়ারী বিকেল ২টা থেকে ৬টা পযর্ন্ত সময়ে ধারালো অস্ত্র শস্ত্র সহকারে বিভীষিকাময় তান্ডব চালায় অভিযুক্ত সন্ত্রাসী কামাল উদ্দিন ধলু, তার দুই ছেলে মজনু ও খোকন, স্ত্রী শাহানা ও পিতা মো: শফির নেতৃত্বে। হামলায় গুরুতর রক্তাক্ত জখম হয় অসহায় পরিবারের নুরুল কবিরের স্ত্রী জরিনা বেগম (৪০), মেয়ে সদস্য সমাপ্ত দাখিল পরীক্ষার্থী মিনু আক্তার (১৭), মো: মানিকের স্ত্রী কহিনুর আক্তার (৩৬), আবু তাহেরের স্ত্রী সেলিনা আক্তার। তারা আত্বরক্ষার্থে পালিয়ে বাড়ির ভেতর ঢুকে পড়লে বাড়ির দরজা ও রান্না ঘর ভাংচুর করে ভেতরে প্রবেশ করে দখলবাজ সন্ত্রাসীরা। লুট করেছে নগদ ১লাখ ৫০ হাজার টাকা, মোবাইল সেট ও স্বর্ণালংকার। পরে স্থানীয়দের মাধ্যমে বাংলাদেশ পুলিশের ৯৯৯ নাম্বারে ফোন করলে ওসি’র নির্দেশে এএসআই মাসুদ রানার নেতৃত্বে সংগীয় পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে জিম্মিদশা থেকে তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। আহতদের মধ্যে কর্তব্যরত চিকিৎসক জরিনা আক্তারকে আশংখাজনক অবস্থায় জেলা সদর হাসপাতালে রেফার করেন। অভিযুক্ত কামাল উদ্দিন ধলুর বিরুদ্ধে হত্যা,মাদকসহ একাধিক মামলা রয়েছে। কক্সবাজার চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাকের মো: যুবায়ের বলেন, ঘটনার বিষয়ে প্রাথমিক শুনলেও এখনো লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।