কে হচ্ছেন বেতাগী ১নং বিবিচিনি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি

প্রকাশিত: ১১:০৭ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০
আর. কে. রিপন বিশেষ প্রতিনিধিঃ
সাগর বিধৌত বরগুনা জেলা দ্বিতীয় গোপালগঞ্জ নামে পরিচিত, দক্ষিণ এশিয়ার ঐতিহ্যবাহী বৃহত্তর রাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তার শীর্ষে জেলাটি। আর এজন্যই এখানে নেতৃত্বে প্রতিযোগিতা দেখা যায়। প্রত্যেকটি সহযোগী সংগঠনের কাউন্সিলে ব্যাপক প্রতিযোগিতা ও উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়। আর বেতাগী উপজেলায় আওয়ামী লীগের ঘাঁটি হিসেবে ব্যাপক পরিচিতি রয়েছে। বেতাগী উপজেলার ঐতিহ্যবাহী ১নং বিবিচিনি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কাউন্সিল উপলক্ষে শিক্ষা, শান্তি, প্রগতির শ্লোগানে উৎসবমুখর পরিবেশে এগিয়ে চলছে সভাপতি প্রত্যাশী ব্যক্তিদের প্রচারণা।
বিবিচিনি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ রবিউল ইসলাম রবি, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মোঃ শাকিল আলম খান, দপ্তর সম্পাদক মোঃ রাসেল হাওলাদার ও প্রচার সম্পাদক গাজী মোঃ জাফর এর ব্যাপক প্রচার লক্ষ্য করা যাচ্ছে।
রবিউল ইসলাম রবি আমাদের প্রতিনিধিকে বলেন অামরা পারিবারিক ভাবেই আওয়ামী লীগের রাজনৈতির সঙ্গে জড়িত এবং অামার দাদা বিবিচিনি ইউনিয়ন ছাএলীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গাজী আরিফুল ইসলাম ফোরকানের হাত ধরে ছাত্ররাজনীতিতে অাশা, আমরা সব সময়ই মানবতার সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখতে চাই। মানবতার সেবার অংশ হিসেবে আমাদের সাধ্যের মধ্যে থেকে আমরা কাজ করে চলছি। রিক্সা শ্রমিক থেকে শুরু করে বিভিন্ন এলাকার গরিব দুঃখী ও অসহায় মানুষের পাশে সাহায্য সহযোগিতার হাত বারিয়ে দিয়েছি। ইতিমধ্যে করোনা ভাইরাস ও ঈদ কালীন সময়ে আমরা অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে ঈদ উপহার প্রদান করেছি। সেই সাথে আমরা চাচ্ছি মানবতার জননী জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে আমরা একটি শক্তিশালী কমিটি উপহার দিতে চাই। ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টা ও অংশগ্রহণ আমাদের দেশকে আরো সামনের দিকে এগিয়ে যাবে বলে বিশ্বাস করি। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন বাস্তবায়নে সকল মানুষের অংশগ্রহণ প্রত্যাশা করছি। অাপনাদের মাঝে ছিলাম, অাছি, থাকবো, ইনশাআল্লাহ। পাশাপাশি আপনাদের সকলের দোয়া ভালোবাসা চাই।
গাজী মোঃ জাফর বলেন শিক্ষা, শান্তি, প্রগতি এই শ্লোগানে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ মানুষের কল্যাণে মানবতার কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে। ঐতিহ্যবাহী সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর অন্যতম সহযোগী সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের যথেষ্ট সুনাম রয়েছে। আমরা সুনামের সাথে এগিয়ে চলছি, আমি যদি অত্র কমিটির সভাপতি হিসাবে নির্বাচিত হই, আপনাদেরকে সাথে নিয়ে মানবতার সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখতে চাই। সেজন্য আপনাদের সকলের দোয়া প্রত্যাশা
শাকিল আলম খান বলেন আমার বাবা জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শে নিজেকে গঠন করার চেষ্টা করেছেন। বর্তমানে তিনি ১নং বিবিচিনি ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড এর সিনিয়র সহ সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। আমিও তাকে অনুসরণ করে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের গড়া রাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সাথে কাজ করে যাচ্ছি। আপনাদের দোয়া ও ভালোবাসা নিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে আরও শক্তিশালী করতে চাই।
মোঃ রাসেল হাওলাদার বলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর আদর্শ বুকে লালন করে ছাত্র রাজনীতি শুরু করেছি। আমরা চাই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বপ্ন বাস্তবায়নে তার সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনাকে সকল ইউনিটের শক্তিশালী কমিটি উপহার দিয়ে তাঁর হাতকে শক্তিশালী করে পুনরায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় দেখতে চাই।
সে ক্ষেত্রে ১ নং বিবিচিনি ইউনিয়ন ছাত্রলীগ এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জনাব মঈনুল হক রিকু শিকদার বলেন বহু ত্যাগ- তিতিক্ষা অতিক্রম করে আমরা ছাত্রলীগকে এ পর্যন্ত নিয়ে এসেছি। নতুন প্রজন্মকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ইতিহাস তুলে ধরতে হবে। সঠিক ইতিহাস কোন ভাবেই বিকৃতি করতে দেয়া যাবে না। মহান স্বাধীনতার স্থপতি প্রতি সম্মান, ভালোবাসা, শ্রদ্ধা রেখে আমরা তার স্বপ্ন পূরণের লক্ষে কাজ করে যাব। সেই সাথে তরুণদের নিয়ে সামনে এগিয়ে যেতে চাই বহুদূর। সমাজ পরিচালনায় ছাত্রসমাজ অগ্রণী ভূমিকা পালন করে তাই ছাত্রলীগের কমিটি টি আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। একটি সফল কমিটি উপহার দিয়ে ইউনিয়নের আরো সফলতার দিকে এগিয়ে নিয়ে যাব।
উৎসবমুখর পরিবেশে প্রচারণা চলছে। অত্র ইউনিয়নের সর্বস্তরে ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে উৎসবের আমেজ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এখন সবার মনে একই প্রশ্ন কে হচ্ছে ছাত্রলীগের সভাপতি।